নগদ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম

নগদ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করতে চান? এই পোস্টে দেখুন কি করতে হবে।

নগদ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন

কখনো কখনো বিভিন্ন কারণে নগদ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করার দরকার হয়। তবে এর জন্য কি করতে হবে, তা হয়তো আপনার জানা নাই।

এই পোস্টে আমি নগদ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো, এবং এর সাথে কি কি লাগতে পারে তাও বলবো। তাহলে আসুন পোস্টি দেখে নেয়া যাক।

কখন একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করবেন?

ধরুন আপনার সিমে অন্য কারো নামে নগদ একাউন্ট খোলা আছে। এখন আপনি আপনার সেই একাউন্ট অন্য কারো নামে না রেখে আপনার নামে করতে চাচ্ছেন। সেই ক্ষেত্রে আপনি এটি করতে পারবেন।

কিন্তু আপনি চাইলে একাউন্ট পরিবর্তন করতে পারবেন না। কেননা নগদের একাউন্ট একজন ব্যাক্তির নামে একটিই করা যায়। দুটি করার কোনো সিস্টেম নেই।

একাউন্টেন পিন ভুলে যাওয়ার কারণেও মালিকানা পরিবর্তন করার দরকার নাই। এর জন্য একাউন্টের পিন নাম্বার ভুলে গেলে করণীয় পোস্টি পড়তে পারেন।

নগদ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম

আপনি চাইলেই নগদ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করে ফেলতে পারবেন না। কেননা ওই একাউন্ট যার নামে করা, নগদ তার দেয়া নিশ্চয়তা ছাড়া একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করবে না। সেই সাথে আপনার সাথে কিছু ডকুমেন্টস থাকতে হবে মালিকানা পরিবর্তন করতে। আর আপনাকে কাস্টমার কেয়ারের সহযোগিতা নিতে হবে।

ডকুমেন্টস কি কি লাগবে আসুন নিচে তা দেখে নেয়া যাক।

নগদ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করতে কি কি লাগে?

নগদ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করতে যা যা লাগবে তা হলো:

  • ভোটার আইডি কার্ড এর কপি।
  • ব্যাক্তির সাম্প্রতিক তোলা এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • যার নামে বর্তমানে একাউন্ট খোলা সেই ব্যাক্তি।
  • বর্তমান মালিকের ভোটার আইডি কার্ড এর কপি।
  • তার এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।

একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম

মালিকানা পরিবর্তন করতে উপরে উল্লেখিত ডকুমেন্টস সহ এবং একাউন্টের মালিক সহ আপনাকে আপনার নিকটস্থ কাস্টমার কেয়ারে যেতে হবে। সেখানে গিয়ে আপনি যদি সেই একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তনের বিষয়ে তাদের জানান, তবে তারা তা করে দিবে।

কাস্টমার কেয়ারে গেলে তারা আপনার কাছ থেকে ডকুমেন্টস গুলো সংগ্রহ করে তা যাচাই বাছাই করবে। তারপর তারা একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করতে যা যা করা দরকার তার জন্য প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা নিবে।

শেষকথা

এখানে আরো একটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে। আপনার এই নগদ একাউন্টে যদি কোনো ব্যালেন্স থেকে থাকে, তবে আপনাকে তা মালিকানা পরিবর্তনের পূর্বেই শূন্য করে নিতে হবে।

কেননা, আপনার সিমে থাকা একাউন্টি তারা বন্ধ করে দিয়ে তারপর আপনার জন্য নতুন আরেকটি একাউন্ট তৈরি করে দিবে। এখানে আপনার ব্যালেন্স যদি থেকে থাকে, তবে আপনি তা হারাবেন।

তাই একাউন্ট ব্যালেন্স শূন্য করে তবেই আপনার উচিত হবে কাস্টমার কেয়ারে আপনার একাউন্টের বর্তমান মালিক কে নিয়ে ভিজিট করা। একাউন্ট ব্যালেন্স শূন্য করতে পারবেন টাকা ব্যাংকে ট্রান্সফার দিয়ে। কিভাবে জানতে পড়ুন নগদ থেকে ব্যাংকে টাকা ট্রান্সফার এই পোস্টি।

নগদ সম্পর্কে আরো জানতে পড়ুন নগদ

নগদ নিয়ে অন্যান্য পোস্ট গুলো পড়ুন

নগদ টু রকেটনগদ থেকে রকেটে টাকা ট্রান্সফার করার নিয়ম
একাউন্ট লকডনগদ একাউন্ট লক হলে করনীয়
উদ্দ্যোক্তা একাউন্টনগদ উদ্যোক্তা একাউন্ট খোলার নিয়ম
বিদ্যুৎ বিলনগদে বিদ্যুৎ বিল দেওয়ার নিয়ম
ইসলামি একাউন্টনগদ ইসলামিক একাউন্ট খোলার নিয়ম
এড মানিসেলফিন থেকে নগদে এড মানি করার নিয়ম
নগদ নিয়ে অন্যান্য পোস্ট

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।