Nagad ডাক বিভাগের একটি ডিজিটাল লেনদেন সেবা। এর মাধ্যমে খুব সহজেই টাকা লেনদেন করা যায়। দেশের অন্যান্য জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস গুলো থেকে এই নগদ তুলনামূলক ভালে কিছু সুবিধা দেয়। কিছু সুবিধা যেমন: নিজে নিজে বাড়িতে বসে নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম অনুসরণ করে একাউন্ট করা, বা অন্যদের তুলনায় কম খরচে লেনদেন, ইত্যাদি।

এই পোস্টে আমরা নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম সহ নগদ একাউন্টের সাথে সম্পর্কিত সকল টিপস ও ট্রিকস জানার চেষ্টা করবো। কিছু কিছু তথ্য আরো বিস্তারিত ভাবে তুলে ধরার জন্য আলাদা পোস্ট তৈরি করে লিংক করে দেয়া হবে। চলুন তাহলে শুরু করা যাক।

Nagad account opening, tips and tricks
Nagad account

Table of Contents

নগদ একাউন্টের সুবিধা

নগদ একাউন্ট থাকলে আপনি যেসকল সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন তা হলো:

ইত্যাদি।

নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

আপনি একাধীক উপায়ে নগদ একাউন্ট খুলতে পারবেন। চাইলে ঘরে বসেও নগদ একাউন্ট খুলতে পারবেন, আবার চাইলে নগদের এজেন্ট দ্বারাও একাউন্ট খুলতে পারবেন। এর জন্য আপনার কিছু জিনিস দরকার হবে, যেমন: আপনার এনআইডি কার্ড, একটি সিম কার্ড ইত্যাদি। তাদের এপ ব্যবহার করে আপনি খুব সহজে এই একাউন্ট খুলার কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন।

এখন আসুন দেখে নিই কয়টি উপায়ে আপনি আপনার নগদ একাউন্ট খুলতে পারবেন।

যেসব উপায়ে নগদ একাউন্ট খোলা যাবে

১. নগদের এপ ব্যবহার করে।
২. ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে।
৩. নগদের এজেন্টের সহায়তা নিয়ে।
নগদ একাউন্ট খোলার উপায়

এপ ব্যবহার করে নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

Nagad এপ ব্যবহার করে নগদ একাউন্ট করার জন্য নিচের প্রসেসটি ফলো করুন।

  • প্লে স্টোর কিংবা অ্যাপ স্টোর থেকে “Nagad App” ডাউনলোড করে নিন।
  • অ্যাপ ডাউনলোড করার পর ওপেন করে প্রদত্ত নির্দেশনা অনুসরণ করুন।
  • জাতীয় পরিচয়পত্রের উভয় পার্শের ছবি আপলোড করুন।
  • একটি সেল্ফি তুলে একাউন্টে যুক্ত করুন।
  • টার্মস এবং কন্ডিশনস পড়ে Agree বাটনে ক্লিক করুন।
  • আপনার সিগনেচার প্রদান করুন।
  • উপরোক্ত সকল তথ্য সঠিকভাবে প্রদান করা হয়ে গেলে আপনি নগদ এর সেবা উপভোগ করতে সক্ষম হবেন।

ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

গ্রামীণফোন, রবি, এয়ারটেল, টেলিটক, বাংলালিংক অর্থাৎ এসব যেকোনো অপারেটরের মোবাইলের সিম ব্যবহারকারীগণ *167# ডায়াল করে একাউন্টের জন্য একটি পিন কোড সেট করলেই একটিভ হয়ে যাবে নগদ একাউন্ট। তারপর আপনি উপভোগ করতে পারবেন নগদের সকল সুবিধা।

এই সুবিধা আপনি শুধু কোড ডায়াল করে নিতে পারায় আপনার এই সুবিধা নিতে কোনো এন্ড্রয়েড ফোনেরও দরকার নেই। আপনি এটি নিতে পারবেন আপনার কাছে থাকা বাটন ফোন থেকেও।

নগদের এজেন্টের সহায়তা নিয়ে একাউন্ট করার নিয়ম

আপনার কাছে যদি অন্য দুটি উপায় সুবিধাজনক না মনে হয় তবে আপনি এজেন্টের সহায়তা নিতে পারেন। এর জন্য আপনাকে যা করতে হবে তা হলো, আপনার নিকটবর্তী নগদ সেবা দেয় এমন দোকানে চলে যেতে হবে। সেখানে গিয়ে আপনার একাউন্ট খোলার বিষয়ে জানালে তারা আপনাকে সহযোগিতা করবে।

এক নজরে একাউন্ট খুলতে যা যা লাগবে
১. আপনার ভোটার আইডি কার্ড
২. একটি সিম কার্ড যেখানে আগে কখন নগদ একাউন্ট খোলা হয়নি।

আইডি কার্ড ছাড়া নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

অনেক সময় অনেকের ভোটার আইডি কার্ডে সমস্যা থাকে, যার ফলে তাদের আইডি কার্ড ছাড়াই প্রয়োজনে নগদ একাউন্ট খোলার দরকার হয়। তাদের আইডি কার্ডে হয়তো কোনো ভুল থাকায় তারা তা ব্যবহার করতে পারছে না। কিন্তু তাদের কাছে জন্ম নিবন্ধন বা পাসপোর্ট আছে। এখন এই আইডি কার্ড ছাড়াই নগদ একাউন্ট করার জন্য তাকে নগদের কাস্টমার কেয়ারের সহযোগিতা নিতে হবে। কেননা সরাসরি এগুলো দিয়ে একাউন্ট করার কোনো অপশন পাওয়া যায় না। এটি কেবল কাস্টমার কেয়ারই করতে পারবে।

নগদ উদ্যোক্তা একাউন্ট খোলার নিয়ম

নগদ উদ্যোক্তা একাউন্ট খোলার জন্য প্রয়োজনিয় ডকুমেন্টস যেমন: ট্রেড লাইসেন্স, আইডি কার্ড ইত্যাদি সংগ্রহ করে, সেই সাথে দোকান নির্দিষ্ট করে আপনাকে উদ্যোক্তা একাউন্টের আবেদন করতে হবে। আবেদন করতে পারবেন নগদের কাস্টমার কেয়ার ভিজিট করে অথবা তাদের স্থানিয় এসআর এর সাথে যোগাযোগ করে তার সহযোগিতা নিতে পারেন। আরো জানতে নিচে থাকা লিংকে ক্লিক করুন।

নগদের বিভিন্ন প্রকার একাউন্ট

রেগুলার একাউন্টউপরে আলোচনা করা হয়েছে।
ইসলামিক একাউন্টনগদ ইসলামিক একাউন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত
উদ্দ্যোক্তা একাউন্টনগদ উদ্যোক্তা একাউন্ট খোলার নিয়ম
নগদ একাউন্ট

নগদ একাউন্ট এর ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম

দুই ভাবে আপনি আপনার ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন। পদ্ধাতি গুলো হলো:

  • ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে
  • নগদ এপ ব্যবহার করে

ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে নগদের ব্যালেন্স চেক

মোবাইল থেকে ইউএসএসডি কোড দিয়ে নগদের ব্যালেন্স চেক করতে অনুসরণ করুন *167#>>7. My nogod>>1. Balance enquiry>>PIN>>Send এই প্রকৃয়া। অর্থাৎ প্রথমে *167# ডায়াল করে, তারপর 7 সিলেক্ট করে, তারপর 1 সিলেক্ট করে এবং পিন দিয়ে সেন্ড করতে হবে।

নগদ এপ থেকে ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম

নগদ এপ ব্যবহার করে ব্যালেন্স চেক করার জন্য প্রথমে নগদ এপে পিন দিয়ে লগইন করুন। লগইন করার পর এপের একদম উপরে দেখতে পাবেন ট্যাপ করুন অথবা ‘Tap for balance‘ লিখা অপশন। সেখানে ক্লিক করলে আপনার নগদ একাউন্টে থাকা টোটাল ব্যালেন্স আপনার সামনে প্রদর্শন করা হবে।

নগদ একাউন্টের পিন নাম্বার ভুলে গেলে করণীয়

একাউন্ট করার পর যদি কোনো কারণে আপনার পিন নাম্বার ভুলে যান তবে আপনাকে যা করতে হবে তা হলো, আপনাকে নগদের কাস্টমার কেয়ারে কল করতে হবে। তারা আপনাকে কিভাবে পিন রিসেট করতে হবে সে ব্যাপারে সহযোগিতা করবে। তবে আপনি চাইলে কল না করেও আপনার পিন রিসেট করতে পারবেন। এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে পড়ুন নগদ একাউন্টের পিন নাম্বার ভুলে গেলে করণীয় কি।

কখন পিন ভুলে গেলে উল্টাপাল্টা পিন দিয়ে ট্রাই করা একদম উচিত নয়। কেননা এতে করে একাউন্ট লক হয়ে যাবে তিন বারের পর। যদি একাউন্ট লক অলরেডি করে ফেলেন, তাহলে সমাধান জানতে পড়ুন নগদ একাউন্ট লক হলে করনীয়

নগদ একাউন্ট হ্যাক হলে করণীয়

আপনার যদি মনে হয় যে আপনার একাউন্ট হ্যাক হয়েছে, অন্য কেউ আপনার একাউন্টের এক্সেস নিয়েছে বা এক্সেস নিয়ে আপনার টাকা সরিয়ে ফেলছে, তবে যতো দ্রুত সম্ভব আপনার উচিত হবে কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করা। কেননা নগদ চাইলে এই টাকা যেই একাউন্টে থাকবে, সেখান থেকে লেনদেন হোল্ড করে দিতে পারবে। পরে হয়তো যাচাই বাছাই করে আপনার টাকা আপনাকে ফিরিয়েও দিতে পারে। তাই এই ব্যাপারে আপনার দেরি করা উচিত নয়।

নগদ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করা যায় কি?

নগদ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করা সম্ভব। যদিও আপনি এটি নিজে নিজে করতে পারবেন না। এর জন্য আপনাকে কাস্টমার কেয়ারের সহযোগিতা নিতে হবে। এ সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে পড়তে পারেন নগদ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম এই পোস্টি। আর মালিকানা পরিবর্তনের আগে আপনার একাউন্টের ব্যালেন্স শুন্য করে নেয়ার জন্য পড়ুন নগদ থেকে ব্যাংকে টাকা ট্রান্সফার করার নিয়ম

নগদ থেকে রকেটে টাকা ট্রান্সফার করার নিয়ম