পূবালী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

আপনি কি পূবালী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম খুজছেন? তাহলে আপনি একদম ঠিক জায়গায় এসেছেন যেখানে আমি এই পূবালী ব্যাংকের একাউন্ট খুলার নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

পূবালী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

পূবালী ব্যাংক বাংলাদেশের একটি বেসরকারী ব্যাংক। যদিও স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালে পূবালী ব্যাংক নামে এই ব্যাংককে সরকারিকরণ হয়েছিলো, কিন্তু পুনরায় ১৯৮৩ সালে এটিকে বেসরকারিকরণ করা হয় এবং নামকরণ করা হয় “পূবালী ব্যাংক লিমিটেড”।

যাই হোক, আজকের এই পোস্টে আমি আলোচনা করবো পূবালী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম, সেই সাথে কি কি ডকুমেন্টস দরকার হবে এই একাউন্ট খোলার জন্য, এর ইন্টারেস্ট রেট এবং এর ‍সুবিধা। এছাড়া আরো বেশ কিছু বিষয় নিয়ে আপনাদের কিছু প্রশ্নের উত্তর দেয়ার চেষ্টা করবো এই পোস্টের একদম শেষে।

পূবালী ব্যাংক একাউন্ট টাইপ

আপনি যদি ঠিক করে ফেলেন যে আপনি একটি একাউন্ট করতে চান এই পূবালী ব্যাংক, তবে আপনাকে প্রথমেই ঠিক করতে হবে আপনি আসলে কি একাউন্ট করতে চান। এটি নির্ভর করবে আপনার অবস্থার উপর।

আপনি যদি জমা করার উদ্দেশ্যে একটি একাউন্ট করতে চান তবে আপনি সেভিংস একাউন্ট করতে পারবেন। আবার চাইলে স্কুল একাউন্ট করতে পারবেন যদি আপনি একজন স্টুডেন্ট হয়ে থাকেন।

ঠিক এই ভাবে বিভিন্ন অবস্থানের জন্য আপনি বিভিন্ন একাউন্ট করার সুযোগ পাবেন পূবালী ব্যাংকে। তাহলে এখন আপনি কি কি একাউন্ট করার সুযোগ পাবেন এই ব্যাংকে তা দেখে নেয়া যাক।

  • সেভিংস ডিপোজিট
  • কারেন্ট একাউন্ট
  • স্পেশাল নোটিশ ডিপোজিট
  • স্কুল ব্যাংকিং
  • পূবালী পেনশন স্কিম
  • পূবালী সঞ্চয় প্রকল্প
  • শিক্ষা সঞ্চয় প্রকল্প
  • ফিক্স ডিপোজিট
  • দ্বিগুন সঞ্চয় প্রকল্প
  • মান্থলি প্রফিট বেইজড ফিক্স ডিপোজিট
  • স্বাধীন সঞ্চয়
  • টার্গেট বেইজড স্মল ডিপোজিট

একাউন্ট খুলতে যা যা লাগবে

এখানে কিছু কমন ডকুমেন্টস যা অন্যান্য ব্যাংকে প্রয়োজন হয়ে থাকে তা এখানেও প্রয়োজন হবে এবং এই ডকুমেন্টস গুলো আপনাকে সংগ্রহ করতে হবে আপনার একাউন্ট খুলার প্রসেস শুরু করার আগে। তাহলে চলুন দেখে নেয়া যাক কি কি ডকুমেন্টস আপনার দরকার হবে।

  • একাউন্ট ধারীর ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • ছবি যুক্ত পরিচয়পত্র যেটা হতে পারে তার এনআইডি বা আপনার পাসপোর্ট।
  • নমিনির এক কপি ছবি ও তার ভোটার আইডি কার্ড।
  • একজন ইন্ট্রুডিউছার, যার মাধ্যমে একাউন্টধারী একাউন্ট করতে এসেছে।
  • ইউটিলিটি বিলের কপি আপনার ঠিকানার প্রুফ হিসেবে।
  • ট্রেড লাইসেন্স (যদি ব্যবসায়ি হয়ে থাকেন)।
  • এছাড়াও গ্রাহকের প্রকারের ভিত্তিতে প্রয়োজনে অন্যান্য নথি দরকার হতেও পারে।

পূবালী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

আপনি যদি পূবালী ব্যাংক একাউন্ট খুলতে চান এবং এর জন্য প্রয়োজনিয় সব ডকুমেন্টস কালেক্ট করে থাকেন তবে একাউন্ট করার জন্য আপনার নিকটস্থ পূর্বালি ব্যাংকের শাখায় চলে যান। পূর্বালি ব্যাংকের শাখায় গেলে ব্যাংকের স্টাফরা আপনাকে একটি ফর্ম দিবে একাউন্ট করার জন্য।

তারা এটি পূরণ করতে আপনাকে সাহায্য করবে। সবকিছু আপনার ডকুমেন্টস এর সাথে মিল রেখে ফর্মটি পূরণ করা হলে তা ব্যাংকে আপনার ডকুমেন্টস সহকারে ব্যাংকে জমা দিতে হবে। এটি জমা করার পর ব্যাংক হয়তো একদিনের মতো সময় নিতে পারে আপনার একাউন্ট সচল করা জন্য।

যৌথ একাউন্ট করার ক্ষেত্রে

আপনি চাইলে পূবালী ব্যাংকে যৌথ একাউন্ট করতে পারবেন, যার জন্য আপনাকে কিছু আলাদা ডকুমেন্টস সাবমিট করতে হবে আপনার এবং আপনার সাথে যারা যুক্ত হবেন তাদের সবার।

এর জন্য যা যা লাগবে

  • আপনাদের যৌথ চুক্তিপত্রের একটি কপি ব্যাংকে জমা দিতে হবে।
  • সকল ব্যাক্তিদের নামের তালিকা দিতে হবে।
  • তাদের ঠিকানা দিতে হবে।
  • তাদের ছবি দিতে হবে।
  • তাদের নমিনির স্বাক্ষর দিতে হবে।
  • ট্রেড লাইসেন্স এর একটি কপি দিতে হবে।

এই সম্পর্কে নিচের দেয়া লিংকে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

<<যৌথ ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম ও সুবিধা অসুবিধা>>

পূবালী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট

পূবালী ব্যাংকে এই একাউন্ট স্কুল একাউন্ট নামে খোলা যায়। এটি শিক্ষার্থীদের জন্য একটি সেভিংস অ্যাকাউন্ট। এটি মূলত পিতামাতা/ অভিভাবক দ্বারা পরিচালিত করা যায়। ন্যূনতম ১০০ টাকা জমা করে তারা এই একাউন্ট করতে পারবে।

এখানে আছে ফ্রি ডেবিট কার্ড সুবিধা, অনলাইন লেনদেনের সুবিধা, এসএমএসের মাধ্যমে তাৎক্ষণিক লেনদেনের সুবিধা। যখনই একাউন্টধারী ছাত্র ১৮ বছর হবে, তার একাউন্ট নিয়মিত সঞ্চয় একাউন্টে রূপান্তরিত হবে।

এর জন্য যেসকল ডকুমেন্টম লাগবে

  • ছাত্রের জন্ম সনদ।
  • বৈধ ছাত্র আইডি কার্ড।
  • তার স্কুলের সর্বশেষ মাসিক টিউশন ফি রসিদ।
  • সাম্প্রতিক সময়ে তোলা পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • অভিভাবকের এনআইডি/ স্মার্ট কার্ড/ পাসপোর্ট/ ড্রাইভিং লাইসেন্সের ফটোকপি।
  • অভিভাবকের সাম্প্রতিক পাসপোর্ট সাইজের ছবি।

পূবালী ব্যাংক ইন্সটেন্ট একাউন্ট

পূবালী ব্যাংক ইন্সটেন্ট অ্যাকাউন্ট হল একটি ই-কেওয়াইসি ভিত্তিক ব্যাংক অ্যাকাউন্ট। রিয়েল টাইম এনআইডি ভেরিফাই টেকনোলজি এবং প্রায় কোনো শারীরিক যোগাযোগ ছাড়াই যেকোনো পূর্বালি ব্যাংকের ব্রাঞ্চ থেকে আপনার জাতীয় আইডি কার্ড দিয়ে যেকোনো সময়েই আপনার ইনস্ট্যান্ট অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন।

পূবালী ব্যাংক একাউন্ট সংক্রান্ত প্রশ্ন এবং উত্তর

পূবালী ব্যাংক একাউন্টে ইন্টারেস্ট রেট কতো?

পূবালী ব্যাংক একাউন্টে যে কোনো এমাউন্টের বীপরিতে আপনাকে ৩ শতাংশ ইন্টারেস্ট দেয়া হবে।

ইনিশিয়াল ডিপোজিট কতো?

প্রাথমিক ভাবে আপনাকে ৫০০ টাকা জমা করে আপনাকে একাউন্ট খুলতে পারবেন।

স্কুল একাউন্টের চার্জ কেমন কাটে?

স্কুল একাউন্টের ক্ষেত্রে চার্জ ফ্রি।

অন্য ব্যাংকের একাউন্ট খুলার নিয়ম দেখুন

1. আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম
2. ব্র্যাক ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম
3. ব্যাংক এশিয়া একাউন্ট খোলার নিয়ম
4. ইসলামী ব্যাংকের একাউন্ট খোলার নিয়ম
5. সোনালী ব্যাংকের একাউন্ট খোলার নিয়ম
6. ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট খোলার নিয়ম

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।