বছরের শুরুতে রেমিট্যান্স প্রবাহে কিছুটা স্বস্তি ফিরছে

এই চলতি বছরের প্রথম ছয় দিনে ৪০ কোটি ৮৩ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছে প্রবাসীরা। বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রতি ডলার ১০৭ টাকা ধরলে এর মোট পরিমাণ দাড়ায় প্রায় ৪ হাজার ৩৬৯ কোটি টাকা।

বছরের শুরুতে রেমিট্যান্স প্রবাহে কিছুটা স্বস্তি ফিরছে

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ করা হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

তথ্য অনুযায়ী, চলতি জানুয়ারি মাসের ছয় দিনে ব্যাংকিং চ্যানেলে প্রায় ৪০ দশমিক ৩৮ মিলিয়ন বা ৪০ কোটি ৮৩ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স এসেছে বাংলাদেশে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি এসেছে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশের মাধ্যমে। তারপর বেসরকারি এ ব্যাংকের মাধ্যমে রেমিট্যান্স এসেছে ৯৫.২৬ মিলিয়ন ডলার বা ৯ কোটি ৫২ লাখ ডলার। এর পরেই AIBL বা আল-আরাফা ব্যাংকের মাধ্যমে ২৯.৩২ মিলিয়ন, অগ্রণী ব্যাংকের মাধ্যমে ২৫.৭৯ মিলিয়ন ডলার। তবে এদিকে এখন পর্যন্ত কোন রেমিট্যান্স আসেনি বিডিবিএল, বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক, কমিউনিটি ব্যাংক, বিশেষায়িত রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, বিদেশি সিটি ব্যাংক (এনএ), হাবিব ব্যাংক, ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান এবং স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া।

জানা যায়, চলতি ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের প্রথম দুই মাসেই (জুলাই ও আগস্ট) টানা দুই বিলিয়ন ডলার করে রেমিট্যান্স এসেছিল দেশে। এর পরের মাস সেপ্টেম্বর থেকে কমতে থাকে এই রেমিট্যান্স ধারা। অক্টোবরে আরও কিছুটা কমে আসে। তবে নভেম্বর থেকে আস্তে আস্তে ঘুরে দাঁড়াতে থাকে বৈদেশিক মুদ্রা রিজার্ভের অন্যতম এই উৎস। নভেম্বরে এসেছিল ১৫৯ কোটি ডলার, যা ডিসেম্বরে বেড়ে প্রায় ১৭০ কোটি ডলারে আসে। এ ধারা অব্যাহত রয়েছে নতুন বছরের প্রথম মাসের প্রথম সপ্তাহে।

ব্যাংকিং চ্যানেলে মাধ্যমে এবার বেশ খানিকটা উর্দ্ধমূখী ভাব দেখা গেছে ২০২৩ সালের জানুয়ারি মাসের শুরুতেই। নতুন বছরের প্রথম মাসের প্রথম ৬ দিনে চলতি মাসে এখন পর্যন্ত গড়ে প্রতিদিন এসেছে ৬ কোটি ৮০ লাখ ডলার করে। রেমিট্যান্স আসার এ ধারা অব্যাগত থাকলে ধারনা করা হয় পুরো মাসে ২১০ কোটি বা দুই বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাবে রেমিট্যান্স।

হোম পেজে যেতে ক্লিক করুন bankline এ।

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।